বাংলাদেশ | শনিবার, ফেব্রুয়ারী ২৪, ২০১৮ | ১২ ফাল্গুন,১৪২৪

জাতীয়

20-01-2018 04:53:17 PM

রাজশাহীকে ছাপিয়ে বগুড়া এখন শিক্ষানগর?

newsImg

একসময় বোর্ডসেরার তালিকায় রাজশাহীর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো ভালো করলেও বছর কয়েক ধরে এর ব্যতিক্রম ঘটছে৷ শীর্ষস্থানসহ সেরার তালিকায় উঠে আসছে বগুড়ার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নাম।
রাজশাহী বোর্ডের সেরার তালিকায় প্রতিবছরই বগুড়ার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান জায়গা করে নিচ্ছে৷ শনিবার প্রকাশিত মাধ্যমিকের ফলাফলেও এর ব্যতিক্রম হয়নি। এবারের ফলাফলে সারা দেশের মধ্যে সেরা হয়েছে রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড। আর রাজশাহী বোর্ডের মধ্যে সেরা হয়েছে বগুড়ার প্রতিষ্ঠান। বোর্ডের প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয় স্থানসহ বগুড়ার আটটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান মেধাতালিকায় স্থান করে নিয়েছে। সাফল্যের একই চিত্র ছিল প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিএসসি), জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফলেও।
বগুড়া পুলিশ লাইনস স্কুল অ্যান্ড কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ শাহাদৎ আলম বলেন, রাজশাহীকে পেছনে ফেলে বগুড়া ইতিমধ্যেই ‘শিক্ষানগরে’র খ্যাতি পেয়েছে। শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবকদের প্রচেষ্টায় সাম্প্রতিক সময়ে বগুড়ায় রীতিমতো ‘শিক্ষাবিপ্লব’ ঘটে গেছে।
রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক এস এম এ হোরাইরা প্রথম আলোকে বলেন, শিক্ষার গুণগত মানের দিক থেকে রাজধানী ঢাকার পরে এখন দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে বগুড়া শহর।
রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড সূত্র জানায়, এক দশক আগেও মাধ্যমিকের ফলাফলে বোর্ডে রাজশাহী শহরের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো ভালো অবস্থানে ছিল৷ কিন্তু কয়েক বছর ধরেই মেধাতালিকা কার্যত বগুড়ার স্কুলগুলোর দখলে।
রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান ও বগুড়ার সরকারি আজিজুল হক কলেজের অধ্যক্ষ দীপকেন্দ্র নাথ দাস বলেন, বগুড়ার প্রতিষ্ঠানগুলোর সাফল্যের পেছনে রয়েছে পরিচালনা কমিটির তদারকি, অভিভাবকদের ইতিবাচক ভাবনা, শিক্ষকদের দায়িত্বশীলতা ও আন্তরিকতা৷ এ ছাড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর অবকাঠামোগত সুবিধাও সাফল্যে ভূমিকা রাখছে৷
বগুড়া ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ লে. কর্নেল জহিরুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, বগুড়াকে শিক্ষানগর হিসেবে গড়ে তোলার নেপথ্যে প্রধান অবদান অভিভাবকদের। বগুড়াসহ আশপাশের জেলার অভিভাবকেরা সন্তানদের জন্য এখানকার প্রতিষ্ঠান বেছে নেন। তাঁরা পড়াশোনার জন্য সন্তানদের শহরে পাঠান, সন্তানদের পড়াশোনার জন্য শহরে বাসাভাড়া নিয়ে থাকেন। অভিভাবকদের সদিচ্ছার পাশাপাশি শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের আন্তরিকতা ও আগ্রহের কারণে শিক্ষায় অভাবনীয় পরিবর্তন ঘটেছে৷

খবরটি সংগ্রহ করেনঃ- Masud
এই খবরটি মোট ( 48 ) বার পড়া হয়েছে।
add

Share This With Your Friends