বাংলাদেশ | রবিবার, ডিসেম্বর ১৭, ২০১৭ | ৩ পৌষ,১৪২৪

কেম্পাস

14-11-2017 05:41:23 PM

টিএসসি নয়, হলে গিয়ে আড্ডা দিতে বললেন ঢাবি প্রক্টর

newsImg

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের 'আড্ডার' স্থানগুলো ক্রমেই সংকুচিত করা হচ্ছে- এমন চলমান বিতর্কের মধ্যেই রোববার রাত ১১টার সময় টিএসসি চত্বরে আড্ডারত ছাত্রদের হলে গিয়ে আড্ডা দিতে বললেন প্রক্টর এ কে এম গোলাম রাব্বানী।
একাধিক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, রোববার রাত ১১টার দিকে প্রক্টর টিএসসিতে এসে আড্ডা দেয়া কয়েকজন শিক্ষার্থীর সাথে কথা বলে তাদের পরিচয় জানতে চান। তারা নিজেদের বিশ্ববিদ্যালয় হলের আবাসিক শিক্ষার্থী হিসেবে পরিচয় দিলে তিনি তাদের হলে গিয়ে 'আড্ডা' দিতে বলেন।ঘটনাস্থলে থাকা শহীদ সার্জেন্ট জহুরম্নল হক হলের প্রথম 

 

বর্ষের এক শিক্ষার্থী বলেন, 'আমরা দুই বন্ধু আড্ডা দিচ্ছিলাম টিএসসির সামনের চত্বরে। এ সময় প্রক্টর স্যার আমাদের পরিচয় জানতে চান। পরিচয় দিলে তিনি আমাদের হলে চলে যেতে বলেন।'
এ ব্যাপারে ঘটনাস্থলে উপস্থিত নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক টিএসসির একটি সংগঠনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক বলেন, 'উনি শিক্ষার্থীদের পরিচয় পাওয়ার পরও টিএসসি থেকে চলে যেতে বলেছেন; এখানে বাইক কেন, এত রাতে শিক্ষার্থীরা কি করছে... এ ধরনের প্রশ্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর করতে পারেন কি-না?'
এ প্রসঙ্গে প্রক্টর গোলাম রাব্বানী বলেন, 'আমি গিয়েছিলাম... শুনেছি কিছু বহিরাগত মোটরসাইকেল নিয়ে এসেছে, মেয়েরা ছিল।'
বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্মুক্ত পরিসরে ছাত্রীদের জন্য হলভেদে রাত সাড়ে ৯টা ও ১০টার মধ্যে নিজ নিজ হলে প্রবেশের নির্দেশনা থাকলেও ছাত্রদের জন্য সারারাত বাইরে ঘোরাফেরা বা আড্ডা দেয়া নিয়ে কোনো নিষেধাজ্ঞা নেই।
প্রক্টর ওই ছাত্রদের হলে গিয়ে 'আড্ডা' দিতে বলেছেন কিনা এমন প্রশ্নে তিনি 
বলেন, 'ওদের বললাম যে তোমরা চলে যাও হলে, ১১টায় কিছু নাই তো ওখানে, টিএসসি বন্ধ হয়ে গেছে।'
এদিকে চরম বিতর্ক আর সমালোচনার মুখে পড়ে রাত ৮টার মধ্যে টিএসসিকেন্দ্রিক সংগঠনগুলোর কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়ার নোটিশ প্রত্যাহার করার পর এবার কোনো প্রকার নোটিশ ছাড়াই ৮টার মধ্যেই বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে টিএসসির চায়ের দোকানগুলো।
একাধিক চায়ের দোকানদার বলেন, কয়েকদিন আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল টিমের গাড়িতে লোকজন এসে তাদের রাত ৮টার মধ্যেই দোকানপাট বন্ধের নির্দেশ দেন। তারা প্রায় দিনই এসে দেখে যান ঠিক ৮টায় দোকান বন্ধ হচ্ছে কিনা।
টিএসসিতে এসব দোকানের আনুষ্ঠানিক কোনো অনুমোদন না থাকলেও কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সমঝোতার মাধ্যমে বছরের পর বছর চা বিক্রি করছেন দোকানদাররা। ফলে টিএসসির সব সংগঠনের সদস্য, বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীদের অন্যতম আড্ডার স্থান হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে এই চায়ের দোকানগুলো।
তবে প্রক্টরিয়াল টিমের নির্দেশে চায়ের দোকান বন্ধের যে অভিযোগ তা অস্বীকার করেন প্রক্টর গোলাম রাব্বানী।
প্রক্টরিয়াল টিম রাত ৮টার মধ্যেই চায়ের দোকান বন্ধ করতে বলেছে কিনা বা দপ্তর থেকে এমন নির্দেশনা দেয়া হয়েছে কি না এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর বলেন, "আমি গত ২২ অক্টোবর দায়িত্ব নিয়েছি। দায়িত্ব নেয়ার পর 'প্রক্টরিয়াল বডি' থেকে কেউ বলেছেন কিনা বা 'প্রক্টরিয়াল টিমের' কেউ বলেছেন কি না আমার জানা নেই। এটা বেসিক্যালি টিএসসি অথোরিটি করে।"
এ বিষয়ে টিএসসির পরিচালক মহিবুজ্জামান চৌধুরী ময়না বলেন, 'আমার দপ্তর থেকে এরকম কোনো নির্দেশনা দেয়া হয়নি।'
রাত ১১টার মধ্যেই টিএসসি প্রাঙ্গণে আড্ডা দিতে বারণ ও চায়ের দোকান বন্ধ করে দেয়া প্রসঙ্গে টিএসসিকেন্দ্রিক সংগঠন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদের সদস্য মুনওয়ার রাইয়ান বলেন, 'বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কার্যক্রম সময়ের ফ্রেম দিয়ে বেঁধে দেয়া উচিত না।'
'উন্নত দেশের কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের রাত ১১টার মধ্যে হলে ফিরতে হবে এমন নিয়ম নেই। এগুলো বোডিং হোস্টেলের মতো নিয়মকানুন।'
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আড্ডার প্রায় সব স্থান উঠিয়ে দেয়া হয়েছে অভিযোগ করে রাইয়ান বলেন, 'এখন একমাত্র টিকে থাকা টিএসসির যে সাংস্কৃতিক আবহ আর আড্ডার স্পেস রয়েছে সেটা ধীরে ধীরে বিলীন করার জন্যই রাত ৮টার মধ্যে চায়ের দোকান বন্ধের মতো নির্দেশনা আসতে পারে।'

আই-নিউজ২৪.কম: নিলুফার ইয়াসমিন 

খবরটি সংগ্রহ করেনঃ- আই-নিউজ২৪.কম
এই খবরটি মোট ( 60 ) বার পড়া হয়েছে।
add

Share This With Your Friends