বাংলাদেশ | বুধবার, নভেম্বর ২২, ২০১৭ | ৮ অগ্রহায়ণ,১৪২৪

রাজধানী

06-12-2016 01:30:06 PM

হাতিরঝিলে নামছে বহুল প্রতীক্ষিত ‘ওয়াটার ট্যাক্সি’

newsImg

অবশেষে ইট-কাঠ-পাথর ঘেরা এই ব্যস্ত ঢাকা শহরে দারুণ নৌকাভ্রমণের সুযোগ নিয়ে আসছে ‘ওয়াটার ট্যাক্সি’ নামের একটি ব্যবসায়িক প্রকল্প। রাজধানীর মনোরম জায়গা হাতিরঝিলে নামছে বহুল প্রতীক্ষিত ‘ওয়াটার ট্যাক্সি’।ওয়াটার ট্যাক্সিগুলো প্রতিদিন নির্দিষ্ট সময় মেনে এফডিসির মোড় টার্মিনাল থেকে রামপুরা পর্যন্ত চলাফেরা করবে। সকাল-সন্ধ্যা ব্যস্ত নগরবাসীরা দাফতরিক এবং অন্যান্য প্রয়োজনে জলপথে যাতায়াত করতে পারবেন। এর আগে জনসাধারণের সুবিধার্থে হাতির ঝিল ঘিরে গনপরিবহণের ব্যবস্থা করা হলেও জলপথে এটাই প্রথম সার্ভিস।যাতায়াতের পাশাপাশি চিত্ত-বিনোদনের এই নতুন সুযোগ সৃষ্টির প্রয়াসে আসন্ন বিজয় দিবেস (১৬ ডিসেম্বর) হাতিরঝিল প্রকল্পের পানিতে নামতে যাচ্ছে ’ওয়াটার ট্যাক্সি’। ২২-৩০ আসন বিশিষ্ট এই ইঞ্জিন চালিত নৌকায় মাত্র ২৫ থেকে ৩০ টাকায় এফডিসির মোড় টার্মিনাল থেকে রামপুরা পর্যন্ত এক চক্কর দিতে পারবেন আমজনতা। আর এই দারুণ পর্যটন সেবা নিয়ে আসছে আব্দুল করিম গ্রুপ।সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, সোমবার ৫ তারিখে চারটি ওয়াটার ট্যাক্সি (একটি সাদা এবং তিনটি কমলা রং এর) হাতিরঝিলে আনা হয়েছে। ক্রেন এসে পৌছালেই এদিন রাত্র ১১-১২ টার মধ্যে সবগুলো পানিতে নামানো হবে এবং এগুলোতে ইঞ্জিন স্থাপন করা হবে।জানা গেছে,  ১৬ ডিসেম্বর উদ্বোধনের আগ পর্যন্ত এগুলোর বিভিন্ন পরীক্ষা নিরিক্ষা করা হবে বলে। বোটগুলো বর্তমানে সুটিং ক্লাবের পুলিশ প্লাজার সামনে রাখা হয়েছে।বিনোদনের পাশাপাশি মজাদার খাবারের ব্যবস্থাও রাখছে কর্তৃপক্ষ। ট্যাক্সি টার্মিনালেই হালকা খাবারের ব্যবস্থা রয়েছে। প্রাথমিক ভাবে গণপরিবহন হলেও পরবর্তীতে দর্শনার্থীদের চাহিদার উপর ভিত্তি করে প্রয়োজনে ’নৌকা রিজার্ভ’ এর ব্যবস্থা করা হবে।রাজধানীর হাতিরঝিলে গণপরিবহন হিসেবে চক্রাকার বাস সার্ভিস চালু করার ঠিক এক বছর পর হাতিরঝিল সমন্বিত উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্দ্যোগে নৌ-পথের গণপরিবহন হিসেবে ’ওয়াটার ট্যাক্সি’ সর্ব সাধারণের জন্য চালু করা হচ্ছে। যার পরিচালনায় থাকবে মেসার্স ওয়াহিদ মিয়া” নামের একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। এফডিসি মোড়ের টার্মিনাল থেকে গুলশান মুখি হয়ে রামপুরা পর্যন্ত মাত্র ২৫-৩০ টাকা ভাড়া প্রাথমিক ভাবে নির্ধারণ করা হয়েছে। এর ফলে হাতিরঝিলের আশেপাশের এলাকার সাথে সড়ক পথের মতো পানি পথেও নগরীর  পূর্ব-পশ্চিম অংশের (বনশ্রী, আফতাবনগর, রামপুরা, উলন, গুলশান, বাড্ডার সাথে মগবাজার, বেগুনবাড়ি, তেজগাঁও, কারওয়ানবাজার ও পান্থপথ) এলাকার  যোগাযোগ সহজ হবে বলে ধারণা করছেন অনেকে।১৫ ডিসেম্বর এর আগে ’টেস্ট এন্ড ট্রায়াল’ এর সমস্ত কাজ সম্পন্ন করে আগামী ১৬ ডিসেম্বর এই ওয়াটার ট্যাক্সির উদ্বোধন করা হবে এবং সর্ব সাধারণের চলাচলের জন্য উন্মোক্ত করা হবে বলে জানান হাতিরঝিল সমন্বিত উন্নয়ন প্রকল্পের প্রকল্প কর্মকর্তা মেজর কাজী শাকিল হোসেন।হাতিরঝিলে চলাচলকারী এবং দর্শনাথীদের বিনোদনের কথা চিন্তা করে প্রাথমিক ভাবে ৪টি ওয়াটার ট্যাক্সি চলাচল করবে বলে জানা গেছে।মেজর শাকিল জানান, প্রতিটা বোট তৈরিতে আনুমানিক ৩৫ থেকে ৪০ লক্ষ টাকা ব্যায় হয়েছে। জানুয়ারীর শেষের দিকে  আরো ২টি ওয়াটার ট্যাক্সি নামানো হবে এবং এই ট্যাক্সি সার্ভিস পরবর্তীতে গুলশান লেক হয়ে বাড়িধারা পর্যন্ত সম্প্রসারণ করা হবে বলে তিনি জানান। তবে এখানে কোন ধরনের ছাত্র ভাড়ার ব্যবস্থা থাকছেনা বলে জানান এই প্রকল্প  কর্মকতা।চুক্তির ভিত্তিতে হাতিরঝিল সমন্বিত উন্নয়ন প্রকল্পের অধীনে ”মেসার্স ওয়াহিদ মিয়া” নামের একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান আগামী বিশ বছর এই নৌ সার্ভিস পরিচালনা করবে বলে তিনি জানান।মেজর শাকিল আরও জানিয়েছেন, যাত্রীদেরকে অবশ্যই ওয়াটার ট্যাক্সিতে বসে যেতে হবে। নিরাপত্তার স্বার্থে দাঁড়িয়ে আসা-যাওয়া করার কোন সুযোগ দেয়া হবেনা বলে তিনি মন্তব্য করেন।

 

খবরটি সংগ্রহ করেনঃ- আই-নিউজ২৪.কম
এই খবরটি মোট ( 438 ) বার পড়া হয়েছে।
add

Share This With Your Friends