বাংলাদেশ | শুক্রবার, নভেম্বর ২৪, ২০১৭ | ৯ অগ্রহায়ণ,১৪২৪

ধর্ম শিক্ষা

20-06-2016 01:32:13 PM

রোজার বিশেষ বিশেষ আমলগুলো কি কি

newsImg

ইবাদতের বসন্তকাল রমজান। সওয়াবের ভরা মৌসুম। রহমাত, বরকত ও নাজাতের মাস। নবিজি সা. বলেন, রমজান বরকতময় মাস, তোমাদের দুয়ারে উপস্থিত হয়েছে এ মাসে আল্লাহ একটি রাত প্রদত্ত হয়েছে, যা হাজার মাস থেকে উত্তম। যে এর কল্যাণ থেকে বঞ্চিত হলো, সে বঞ্চিত হল আল্লাহর মহাকল্যাণ থেকে। (ইবনে মাজাহ, ১৬৪৪)

এ মাসে রয়েছে অনেক আমল। আমরা ৩০টি বিশেষ আমল উপস্থাপন করছি। আমলগুলো কবুল হবে যদি নিচের এই দুই শর্ত পাওয়া যায়।

 এক. সহি নিয়ত ও ইখলাস। একনিষ্ঠতার সঙ্গে শুধু আল্লাহর জন্য আমল করা। আল্লাহ তায়ালা বলেন, আর তাদেরকে কেবল এই নির্দেশ দেয়া হয়েছিল যে, তারা যেন আল্লাহর ইবাদাত করে তাঁরই জন্য দীনকে একনিষ্ঠ করে (সুরা বাইয়্যেনাহ : ৫)

দুই. ইবাদাতের ক্ষেত্রে মহানবির অনুসরণ। কুরআন বলছে, এবং রাসুল তোমাদের জন্য যা নিয়ে এসেছেন তা তোমরা গ্রহণ কর, আর যা থেকে তিনি নিষেধ করেন তা থেকে বিরত হও। (সুরা হাশর : ৭)

আমলগুলো হলো-

১. রোজা রাখা : রোজা ইসলামের অন্যতম স্তম্ব। মহানবি সা. বলেছেন, যে ব্যক্তি ঈমান ও ইখলাসের সঙ্গে আল্লাহকে সন্তুষ্টি করার জন্য রমজানের রোজা রাখবে, তার অতীতের সব গুনাহ মাফ করে দেয়া হবে। (বুখারি শরিফ : ২০১৪)

২. নামাজ আদায় : রোজার সঙ্গে যথা সময়ে নামাজ জান্নাতের পথ সুগম করে দেয়। আব্দুল্লাহ ইবন মাসউদ রা. বলেন, তরজমা : আমি বললাম, হে আল্লাহর নবি! কোন আমল জান্নাতের অতি নিকটবর্তী? তিনি বললেন, সময়মতো নামাজ আদায় করা। (মুসলিম শরিফ : ২৬৩)

৩. বেশি বেশি কুরআন পড়া: ৪. কুরআন পড়া শেখানো; ৫. কুরআন মুখস্থ করা; ৬. কোরআনের তরজমা তাফসির পাঠ।

নবিজি বলেন, তোমরা কুরআন শিক্ষা কর এবং তিলাওয়াত কর। (সুনানে তিরমিজি : ২৮৭৬(

৭. বরকতময় সাহরি খাওয়া; ৮. ইফতারি গ্রহণ; ৯. তারাবির নামাজ পড়া; ১০. রমজান পাওয়ার জন্য মহান আল্লাহর কৃতজ্ঞতা আদায় করা। ১১. কল্যাণকর কাজ বেশি বেশি করা; ১২. তাহাজ্জুদ নামাজরে অভ্যাস গড়ে তোলা; ১৩. অধিক হারে দান-সদকাহ করা; ১৪. উত্তম চরিত্রের অনুশীলন; ১৫. শেষ দশে এতেকাফ করা; ১৬. দাওয়াত-তাবলিগে সময় দেওয়া; ১৭. সাধ্য থাকলে ওমরা পালন করা; ১৮. লাইলাতুল কদর অনুসন্ধান করা; ১৯. ইফতার করানো; ২০. অধিকহারে তাওবা ও ইস্তেগফার করা; ২১. আল্লাহর ভয় বা তাকওয়া, জীবনের সর্বস্তরে বাস্তবায়ন; ২২. ফজরের পর সূর্যোদয় পর্যন্ত মাসজিদে অবস্থান করা; ২৩. ফেতরা দেওয়া; ২৪. অসহায়দের সহায় দেওয়া; ২৫. অপচয় না করা; ২৬. আত্মীয় স্বজনদের সম্পর্ক উন্নীত করা; ২৭. সব সময় মুখে ঠোটে ও অন্তরে আল্লাহর জিকর করা; ২৮.মিসওয়াক করা; ২৯. কুরআন বোঝা; ৩০. কুরআন অনুযায়ী আমল করা।
আল্লাহ তায়ালা আমাদের অধিকহারে নেক আমল করার তাওফিক দান করুন।

খবরটি সংগ্রহ করেনঃ- আই-নিউজ২৪.কম
এই খবরটি মোট ( 443 ) বার পড়া হয়েছে।
add

Share This With Your Friends